SL3 Framework

The Purpose of Computer

কম্পিউটারের কাজটা যে আসলে কি, মানে কম্পিউটার আমরা কেন ব্যবহার করি সেই প্রশ্নের উত্তর যদি আমাদের জানা থাকে তাহলেই প্রোগ্রামার হওয়ার যাত্রাটা অনেক সহজ হয়ে যায়। নিচের অংশ পড়ার আগে আপনি নিজে একটু চিন্তা করুন তো যে কম্পিউটারের আসল কাজ কি?

কম্পিউটারের কাজ কি এই প্রশ্ন আমি অনেকের কাছেই করেছি। এই প্রশ্নের সহজ এবং প্রেডিক্টেবল একটা উত্তর আমি সবার কাছ থেকেই পেয়েছি। আর সেটা হচ্ছে প্রব্লেম সল্ভ করা। আপনি ও নিশ্চয় এখন এই কথাটিই ভাবছিলেন। যদি এটা ভেবে থাকেন তাহলে আপনার কাছে আমার দ্বিতীয় প্রশ্ন হচ্ছে কম্পিউটার কি প্রব্লেম সল্ভ করে থাকে?

যখন আমি দ্বিতীয় প্রশ্নটি করি তখন মানুষ সাধারণত একটু ঘাবড়ে যায় এবং কিছুটা সময় নিয়ে বলে বাস্তব জীবনের সমস্যা গুলো কম্পিউটার সমাধান করে থাকে। বাস্তব জীবনের কোন সমস্যা কম্পিউটার সমাধান করে? আমার বাসার ওয়াশরুমের পানির পাইপটা নষ্ট হয়ে গেছে, কম্পিউটারকি এটা সেরে দিতে পারবে? গত দুই দিন ধরে আমি আমার চার্জারটা খুঁজে পাচ্ছি না, কম্পিউটারকি সেটা খুঁজে দিতে পারবে? নাকি আমার রুমের লাইটটা ঠিক করে দিতে পারবে? দুই দিন ধরে জ্বলছে আর নিভছে।

না, এই সমস্যা গুলোর কোনোটাই কম্পিউটার সমাধান করতে পারবে না। তাহলে কম্পিউটার কিভাবে বাস্তব জীবনের সমস্যার সমাধান করতে পারলো?

SL3 Framework - Computer is Dumb

যদি সহজ কথায় কম্পিউটারের কাজটা বোঝাতে চাই তাহলে বলতে হবে এর কাজ ডেটা স্টোর করা, প্রয়োজনের সময় দ্রুত ডেটা খুঁজে বের করে আমাদের দেখানো এবং প্রয়োজন শেষে ডেটাটা রিমুভ করে দেওয়া। এর বাইরে কম্পিউটারের আর কোনো কাজ নেই। এখানে ডেটা বলতে যেকোনো ইনফরমেশনকে বোঝানো হচ্ছে। আমরা সারা মাস কিভাবে চলবো মাসের শুরুতেই খাতা কলমে একটা বাজেট তৈরি করি। এই বাজেট খাতা কলমে না করে আমরা কম্পিউটারে করতে পারি। তাহলে হিসেব নিকেশে অনেক সহজ হবে যাবে। খাতা কলমে কাজ করলে যেমন একটা ইনফরমেশন খুঁজে বের করতে অনেক সমস্যা হবে, ঠিক একই সাথে হিসেব নিকেশ গুলোও আমাদের করতে হবে। কম্পিউটারের ক্ষেত্রে এই কাজ গুলো আমাদের করতেই হবে না, বরঞ্চ সমস্ত কাজ অনেক দ্রুত হবে।

একটা সময় আমরা ডিকশনারি কিনতাম ইংরেজি ভাষার অনুবাদ খোঁজার জন্য। একটা শব্দের অনুবাদ খুঁজতে অনেক বেশি সময় লাগতো। কিন্তু এখন আমরা শব্দটা লিখে সার্চ করলেই মুহুর্তের মধ্যে তার অনুবাদ আমাদের সামনে চলে আসে।

ছোট বেলা থেকে দেখে আসছি ক্লাস টিচার ক্লাসরুমে প্রবেশ করেই উপস্থিতির খাতাটা খুলে বসেন। এবং কলম দিয়ে টিক চিহ্ন দিয়ে কে এসেছে আর কে আসেনি মার্ক ডাউন করেন। যদি বছর শেষে একজন স্পেসিফিক ছাত্রের রোল নাম্বার দিয়ে তাকে খুঁজে বের করতে বলা হয় সে কয় দিন আসে নি, এক্স্যাক্ট কোন কোন তারিখে আসেনি তাহলেই কিন্তু টিচারের মাথা খারাপ হয়ে যাবে। কিন্তু এই কাজটাই কম্পিউটার তুড়ি মেরে করে দিতে পারবে।

আপনি সিম্পল গুগল সার্চ থেকে শুরু করে যত বড় অ্যাপলিকেশন বা গেম আপনার আশে পাশে দেখতে পারছেন বা কল্পনা করতে পারছেন, একটু ভালো করে খেয়াল করলেই বুঝতে পারবেন সব জায়গাতেই কিছু ডেটা আমরা ক্রিয়েট করছি, প্রয়োজন শেষে ডিলিট করছি অথবা ডেটাটা ব্যবহার করছি।

পাবজি এর মতো বিরাট বড় গেমের কথায় চিন্তা করা যাক। এখানে কি হচ্ছে? মুহুর্তের ভিতরে হাজার হাজার ডেটা ক্রিয়েট হচ্ছে এবং ডিলিট হচ্ছে। এখানে আপনাকে যেই ক্যারেক্টার দ্বারা রিপ্রেসেন্ট করা হচ্ছে সেটা একটা ডেটা। এই ক্যারেক্টারের কাছে যেই গানটা আছে সেটা একটা ডেটা, গান থেকে যখন বুলেট বের হচ্ছে সেটা একটা ডেটা, বুলেট বের হওয়ার পরে যেই শব্দটা হচ্ছে সেটা একটা ডেটা, বুলেটটা এক জায়গা থেকে আর একজায়গায় চলে যাচ্ছে মানে ডেটার পজিশন আপডেট হচ্ছে। এবং গুলিটা যখন এনিমির গায়ে লাগছে মানে, এনিমির পজিশন এবং বুলেটের পজিশন সেম হচ্ছে তখন এনিমি ডেটাটা ডেস্ট্রয় হয়ে যাচ্ছে। ডেটা ডেটা আর ডেটা।

ফেসবুকে প্রতিদিন পোস্ট, স্টোরি, ভিডিও, লাইক, কমেন্টের বন্যা। হাজার হাজার শেয়ার করে যে কাউকে ভাইরাল বানায়ে দিচ্ছেন। এই পোস্ট, স্টোরি, ভিডিও, লাইক, কমেন্ট, শেয়ার সব কিছুই হচ্ছে ডেটা। ফেসবুকের মতো এত বড় কোম্পানি শুধু বসে বসে ডেটা ম্যানিপুলেট করছে আর ডেটা ম্যানেজ করছে।

আমাদের কম্পিউটার তো একটা বোকা, গাধা। আমার লেখা প্রথম বইটাতে আমি বলেছিলাম এটা একটা বোকা বাক্স। আমরা যে কম্পিউটারকে ব্যবহার করে এত কিছু করছি তা যদি এই বোকা বাক্সটা জানতো তাহলে নিশ্চিত আমাদের কাছে ট্যাক্স চেয়ে বসত। কারণ আমরা কম্পিউটার ব্যবহার করে যাই করি না কেন কম্পিউটারের কাছে শুধু এত টুকু ইনফরমেশনই যাচ্ছে যে কারেন্ট পাস করবো নাকি করবো না। মানে ০ এবং ১।

যেহেতু কম্পিউটারের কাজ শুধু ডেটা স্টোর করা, প্রয়োজনের সময় ডেটা রিট্রাইভ করা এবং প্রয়োজন না হলে ডেটা ডেস্ট্রয় করে দেওয়া, তাই আমরা যা কিছু কাগজে কলমে রিপ্রেসেন্ট করতে পারি ঠিক তাই আমরা কম্পিউটারে রিপ্রেসেন্ট করতে পারবো। একবারে প্রথম দিনেই আপনি পাবজি বানানোর চিন্তা করেন না, তাহলে ব্যাপারটা একটু বেশি বেশি হয়ে যাবে। সহজ কাজ দিয়ে শুরু করেন। যেমন বাজারের লিস্ট, ক্লাসের সকল শিক্ষার্থীদের ইনফরমেশন, ফোন ডিরেক্টরি, সিম্পল নোটস, আপনার টাকা পয়সার হিসেব এই ধরনের যেই কাজ গুলো আপনি কাগজে কলমে করেন সেই কাজ গুলোকে প্রথমে কম্পিউটারে রূপান্তরের চেষ্টা করতে হবে। ছোট ছোট এই কাজগুলো করতে থাকলে কিছু দিন পরে আপনি বড় বড় সমস্যারও সমাধান করতে পারবেন।

Edit this page on GitHub